আবর্তনশীল ক্ষেতি পদ্ধতি

এক রাখাল, তার গাইকে চড়াতে দিয়ে গাছের ছায়ায় আরামেই বসেছিল ।

আধা মুর্খ সেই রাখালের কাছে এক সরকারি কৃষি কর্মকর্তা গেল এবং আলোচনা শুরু করল ।
সরকারি লোক জিজ্ঞেস করল – তোমার এই গরু কত লিটার দুধ দেয় ?
রাখাল – আমার পরিবারের জন্য যথেস্ট পরিমান ।
সরকারি লোকঃ তুমি কেন কৃত্রিম প্রজনন করতেছ না ? এতে করে ত তুমি ১৫/২০ লিটার দুধ পেতে পার !
রাখালঃ এতে করে আমার কি হবে ?
সরকারি লোকঃ তুমি আলাদা দুধ বাজারে বিক্রি করতে পারবা !
রাখালঃ এতে আমার লাভ কি ?
সরকারি লোকঃ তোমার আয় উন্নতি হবে । সেই টাকায় ভাল বীজ কিনতে পারবা, রাসায়নিক সার কিনতে পারবা, ফসল বেশি ফলাতে পারবা, ট্রাক্টর কিনতে পারবা !
রাখালঃ আয় উন্নতি দিয়ে কি হবে ?
সরকারি লোকঃ তুমি গাছের ছায়ায় নিশ্চিন্তে আরাম করতে পারবা !
রাখালঃ তো আমি এখন কি করছি ? এটা করার জন্য এত চক্কর কাটার কি দরকার !!

আসলে সব কৃষক এই কৃষকের মত বুদ্ধিমান নয় ।

ভারতের উত্তর প্রদেশ এর চাষী প্রেম সিং যখন ১৯৮৭ তে চাষের কাজে আসেন, তখন চারিদিকে এক হই চই শুরু হয়ে গিয়েছিল ।হইচই ছিল, ভাল বীজের, হাইব্রিড বীজের, রাসায়নিক সারের, ট্রাক্টর কেনার, উৎপাদন বাড়াও, অই সার দিলে ভরপুর ফলন এসব নিয়ে ।এর সাথে ছিল মেশিনারিজ কেনা, শ্যালো মেশিন কিনে মাটির নিচের পানি দিয়ে চাষাবাদ করা ।প্রেম সিং ৮৭-৯০ পর্যন্ত এই হইচই এ জড়িয়ে গিয়ে প্রচুর পরিশ্রম করা শুরু করে । হাড়ভাঙ্গা এই খাটুনি খাটার পরে, তিনি আগের ৩ বছরের হিসাব নিয়ে বসেন ।
৪ ভাই মিলে ৬০ একর জমিতে চাষাবাদ করতেন ।সারা বছরের হিসাবে দেখেন যে, গড়ে ২ লাখ রুপির ফসল উনারা বিক্রি করতে পারছেন ।

এই ২ লাখের মাঝে ৩২০০০ ছিল রাসায়নিক সারের খরচ,
৩০০০০ রুপি শ্রমিকের খরচ আর ট্রাক্টর এর ড্রাইভার এর বেতন,
১০০০০ রুপি বিদ্যুত বিল,
১০০০০ রুপি গরুর ঔষধ আর খাবারে,
৬০০০০ রুপি ট্রাক্টর এর কিস্তি পরিশোধে ।

সব খরচ বাদ দিয়ে সারা বছরে দেখা গেল লাভ হয়েছে ৩০০০০/৪০০০০ রুপি মাত্র ।

এই টাকায় ৪ ভাই এর যৌথ পরিবারের খরচ করার পরে দেখা গেল,
হাতে কিছুই নাই উলটা ঋন ।

এভাবেই চাষিরা ঋনের জালে সব সময় জড়িয়ে থাকে । উপমহাদেশের সব কৃষকের এই একই হাল ।নতুন চালু হওয়া এই চাষ পদ্ধতিতে এই ফলাফলই আসছে – কৃষক নিঃস্ব হয়ে গেছে, ঋনে জড়িয়েছে, ফলাফল – আত্নহত্যা ।

এর সাথে সাথে, আমাদের উপমহাদেশ এর জমির উর্বরতা কমেছে দিন দিন ।এর সাথে সাথে বাজারের সাথে, দামের সাথে কৃষকের টম এন্ড জেরি শো হয়েছে ।
ফসলের বাম্পার ফলন হলে দাম কমেছে, উৎপাদন খারাপ হলে দাম বেড়েছে – চাষি কিছুই পায়নি ।

*** *** *** *** *** ***

এই ফাদ থেকে বের হবার জন্য প্রেম সিং নতুন উপায় খুজেছেন, এরপরে গত ১৫ বছর হল নতুন চাষ আর পদ্ধতি নিয়ে কাজ করেছেন ।
উনার মডেল এ, উনি উনার জমিকে ৩ ভাগে ভাগ করেছেন –

*** ১ ভাগে উনি ফলের জন্য রেখেছেন ।

*** ১ ভাগে সবজি চাষ করেছেন যা নিজের পরিবারের জন্য ।

এই ২ ভাগে যা উৎপাদন হয়ে বেচে যাচ্ছে নিজের পরিবারের জন্য – সেটাকে প্রসেস করে পন্য বানিয়ে বিক্রি করছেন নিজেই । ফস্ল বাজারে বিক্রি না করে প্রসেস করে সেটাকে বাজারে দিলে সেখানে ভ্যালু অ্যাড হয়ে চাষি নিজে ভাল দাম পাচ্ছে । বাজারের জন্য ফসল উৎপাদন না করে, নিজের জন্য করার দিকে উনি জোর দিচ্ছেন । এবং সেটাকে প্রসেস করার মালিকানা থাকছে কৃষকের কাছে ।

*** ৩য় ভাগে উনি গরু পালছেন যা উনার সারের যোগান দিচ্ছে ।এই পদ্ধতিকে উনি বলছেন আবর্তনশীল ক্ষেতি ।

এই পদ্ধতিতে চাষিদের বাজার নির্ভরশীলতা কমে যাচ্ছে, কারন সে নিজেই নিজের দরকারের সব নিজের জমিতে উৎপাদন করে নিচ্ছে ।

চাষিকে আত্ননির্ভরশীল হতে হবে,
চাষিকে সাস্টেইনেবিলিটি এর দিকে এগোতে হবে ।

1 Comment

  1. Abdullah Al Masud

    I Am Impressed.

    Reply

Submit a Comment

Your email address will not be published.

কিউবা বিশাল বিপদে পড়ে গিয়েছিল ।

কিউবা বিশাল বিপদে পড়ে গিয়েছিল ।

সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙ্গে যাবার পরে - কিউবা বিশাল বিপদে পড়ে গিয়েছিল । কোল্ড ওয়ার এর সময়ে কিউবাকে দেয়া সোভিয়েত সাহায্য বন্ধ হয়ে যায় ।এই সাহায্যের মাঝে ছিল কৃষি যন্ত্রপাতি, সার, ট্রাক্টর । যে কারনে, যন্ত্র নির্ভর এবং কেমিকেল সার নির্ভর কিউবার কৃষি উতপাদন ব্যাপক...

কেন আপনার ছাগলের খামার করা উচিত না ?

কেন আপনার ছাগলের খামার করা উচিত না ?

বিশেষ করে, ব্লাক বেঙ্গল জাতের ছাগলের খামার কেন করা উচিত না ।যারা ছাগলের খামার করতে চান, তারা অবশ্যই এই পোস্ট পড়বেন, পরিচিত যারা করতে চায় তার সাথে শেয়ার করতে পারেন । ঢাকায় প্রাইভেট চাকুরি করা মাসুম ভাই, ইউটিউবে ভিডিও দেখে খবই উতসাহিত হলেন । তার চাকুরি করতে ভাল লাগে না,...

কিভাবে শুরু করা উচিত ছাগল পালন ?

কিভাবে শুরু করা উচিত ছাগল পালন ?

বিষয়টি নিয়ে অনেক মতামত রয়েছে, কিছু ভুল কিছু শুদ্ধ ।আমি নিজে শুরু করার আগে প্রায় ২ বছর ব্যাপারটা নিয়ে কিছু কিছু বিচ্ছিন্ন চিন্তা করেছি, খোজ নিয়েছি । কিছু খামার ভিজিটের জন্য চেস্টা করেছি ।এখানে আমার অভিজ্ঞতা আর মতামত তুলে ধরার চেস্টা করবো - লেখাটি লম্বা হয়ে যাবে, ক্ষমা...